• চাঁদপুর, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English

কুমিল্লা সামান্য বৃষ্টিতেই বেহাল দশা, ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকার লোকসান

পপুলার বিডিনিউজ রিপোর্ট / ১৪৪ বার পঠিত
আপডেট : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

সামান্য বৃষ্টিতেই দেখা দেয় ভয়বহ জলাবদ্ধতা,সৃষ্টি হয় সীমাহীন দুর্ভোগ। এমনই পরিস্থিতি কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাজারে।

প্রায় সাড়ে ৩ হাজার দোকানের এই বাজারে মালিক-কর্মচারী মিলে ৯ থেকে ১০ হাজার লোকের কর্মসংস্থান। প্রতিদিন লেনদেন হয় কয়েক কোটি টাকার। আশেপাশের প্রায় ৬টি থানার মুল বাণিজ্যিক কেন্দ্র ঐতিহ্যবাহী এই বাজারটি। বর্ষা মৌসুম এলেই জলাবদ্ধতা যেন ঘিরে থাকে বাজারটিকে।

এতেনকরে যেমন ভোগান্তি হচ্ছে, তেমনি গচ্ছা যাচ্ছে কোটি কোটি টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন শুধুমাত্র অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণেই বিগত ২০-২২ বছর যাবত এই জন দুর্ভোগ লেগেই আছে।

সমপ্রতি সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বাজারে দীর্ঘস্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে দিনের পর দিন পানির নীচে শতাধিক দোকান। মাসের শুরু থেকে ভারী বর্ষণে বাজারে আসা ক্রেতা-বিক্রেতারা চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দোকানে পানি ঢুকে পড়ায় ব্যবসায়ীক কার্যক্রম বন্ধের পাশাপাশি পণ্যসামগ্রী নষ্ট হয়ে কোটি কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন ব্যবসায়ীরা।

ভারি বর্ষণে পানিতে তলিয়ে গেছে পেঁয়াজ বাজার, কাঁচা বাজার, শুটকি বাজার, মুরগী বাজার, চাল বাজার, কাঁপড় পট্টি, কামার পট্টি, একতা মার্কেট, সততা মার্কেট ও মেইন গলির ফুটপাতে থাকা সব রকমের দোকানপাট ।

ড্রেনেজ ব্যবস্থা অচল থাকায় পানি সরতে পারে না। তিনটি সেচ মেশিন দিয়ে পানি অন্যত্র সরানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। বৃষ্টির শেষে কাঁদা আর আবর্জনা পঁচে দুর্গন্ধে সৃষ্টি হয় আরেক দুর্ভোগ। জলাবদ্ধতার কারণে সাধারণ ক্রেতা বাজারে আসে না। এতে পাইকারি ব্যবসায়ীদের চরম ধস ও ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।

কোম্পানীগঞ্জ বাজার জুয়েলারী ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি চন্দন বনিক জানান, বৃষ্টিতে বাজারের প্রায় শতাধিক দোকানের ভিতর পানি ঢুকছে। এতে চরম ক্ষয়-ক্ষতির মুখে পড়েছে ব্যবসায়ীরা।

H/N

আপনার মতামত লিখুন


এ জাতীয় আরো খবর..

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০