• চাঁদপুর, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
ব্রেকিং নিউজ
পুলিশকে মানবিকতা, ধৈর্য, বুদ্ধিমত্তার ও সর্বদা সতর্কতার সহিত কাজ করার আহবান : অতিরিক্ত ডিআইজি কচুয়ায় আরো ২টি ড্রেজার উচ্ছেদ করলেন প্রশাসন হাজীগঞ্জে নবাগত ভূমি কর্মকর্তা মানিকের যোগদান প্রত্যাশা ব্লাড ব্যাংকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সম্মাননা ও পুরষ্কার বিতরণ কচুয়ায় আল বারাকাহ ইসলামী বীমা’র মরনোত্তর চেক হস্তান্তর চাঁদপুরে আধুনিক রেল স্টেশন প্লাটফর্মের নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ খলাগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্বোধন করেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশনের আওতায় ৯৯ % মানুষ’ কুমিল্লায় বাসের ধাক্কায় স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু, আহত ১৫ পদ্মাপাড়ে নৌকাবাইচ দেখতে হাজারও মানুষের ঢল

বাঙালির অধিকারের প্রশ্নে বঙ্গবন্ধু ছিলেন আপসহীন-মেজর রফিক

পপুলার বিডিনিউজ ডেস্ক / ১৩৪ বার পঠিত
আপডেট : সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১

চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনের সংসদ সদস্য, মহান মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা। বাঙালির অধিকারের প্রশ্নে বঙ্গবন্ধু ছিলেন আপসহীন। ফাঁসির মঞ্চেও তিনি বাংলা ও বাঙালির জয়গান গেয়েছেন। তরুণ বয়স থেকেই বঙ্গবন্ধুর চিন্তা-চেতনায় ছিল জনগণের কল্যাণ।
তিনি সোমবার সকালে চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে নবনির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন ও শাহরাস্তি উপজেলা কমপ্লেক্সের নবনির্মিত প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম’র উদ্বোধন শেষে উপজেলা মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তে বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে ঘাতকরা হত্যা করে বাংলাদেশের উন্নয়ণ অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দিতে চেয়েছিল।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ আজ অভিন্ন সত্তায় পরিণত হয়েছে। ঘাতকচক্র জাতির পিতাকে হত্যা করলেও তাঁর নীতি ও আদর্শকে মুছে ফেলতে পারেনি। যতোদিন বাংলাদেশ থাকবে ততোদিন জাতির পিতার নাম এ দেশের লাখো-কোটি বাঙালির অন্তরে চির অমলিন, অয় হয়ে থাকবে।
তিনি বলেন, তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।
তিনি বলেন, আমি যখন প্রথম ১৯৯৬ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হই, তখন দেখেছি দুই উপজেলায় (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) মাত্র ৫ কিলোমিটার পাকা সড়ক ছিল। বর্তমানে প্রায় ৮’শ কিলোমিটার পাকা রাস্তা, ডাকাতিয়া নদীর উপর ৮টি সেতু, প্রায় সাড়ে ৮’শ টি ব্রীজ-কালর্ভাট এবং প্রায় ৮’শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, দুই উপজেলায় ডাকাতিয়া নদীর উপর আরো তিনটি ব্রীজের কাজ প্রক্রিয়াধীন। শতভাগ বিদ্যুতায়ন, চারটি বেসরকারি সরকারি স্কুল ও কলেজকে জাতীয়করণ, প্রায় শতভাগ ভাতা প্রদানসহ অসংখ্য উন্নয়নমূলক কাজ করা হয়েছে এবং হচ্ছে। এছাড়াও ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ভূমিসহ ঘর করে দেওয়া হয়েছে। আগামি ১৫ দিনের মধ্যে ৭৩টি প্রকল্পের (ব্রীজ-কালর্ভাট, রাস্ত ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন) উদ্বোধন করা হবে।
এসব উন্নয়ন কাজ করা হয়েছে একমাত্র জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ায়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় না থাকলে এসব উন্নয়ন কখনো হতোনা।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার মো. জহিরুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আবদুল লতিফ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার শাহজাহান, বীরমুক্তিযোদ্ধা আবদুল মান্নান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) কামরুন্নাহার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ ইরান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নাসরিন জাহান শেফালি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মোস্তফা কামাল, শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল মান্নান, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আহসান মঞ্জুরুল জুয়েল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এমদাদুল হক মিলন প্রমূখ।
আপনার মতামত লিখুন


এ জাতীয় আরো খবর..

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১