• চাঁদপুর, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
ব্রেকিং নিউজ
পুলিশকে মানবিকতা, ধৈর্য, বুদ্ধিমত্তার ও সর্বদা সতর্কতার সহিত কাজ করার আহবান : অতিরিক্ত ডিআইজি কচুয়ায় আরো ২টি ড্রেজার উচ্ছেদ করলেন প্রশাসন হাজীগঞ্জে নবাগত ভূমি কর্মকর্তা মানিকের যোগদান প্রত্যাশা ব্লাড ব্যাংকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সম্মাননা ও পুরষ্কার বিতরণ কচুয়ায় আল বারাকাহ ইসলামী বীমা’র মরনোত্তর চেক হস্তান্তর চাঁদপুরে আধুনিক রেল স্টেশন প্লাটফর্মের নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ খলাগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্বোধন করেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশনের আওতায় ৯৯ % মানুষ’ কুমিল্লায় বাসের ধাক্কায় স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু, আহত ১৫ পদ্মাপাড়ে নৌকাবাইচ দেখতে হাজারও মানুষের ঢল

সিজার সর্বোচ্চ কতবার করা নিরাপদ

পপুলার বিডিনিউজ ডেস্ক / ২০০ বার পঠিত
আপডেট : শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১

যদি আপনার সুস্থ বাচ্চা থাকে, তাহলে দুটি বাচ্চা সিজারে নিয়েছেন যথেষ্ট। বাচ্চা ছেলে না মেয়ে এর মধ্য দিয়ে কিন্তু সন্তানের সংখ্যা বাড়ানো যাবে না।

এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিশেষজ্ঞ ডা. দীনা লায়লা হোসেন।

তিনি বলেন, হয়তো আপনার বাচ্চার সমস্যা রয়েছে কিংবা আপনার এটা দ্বিতীয় বিয়ে- এ সকল ভিন্ন গ্রাউন্ডে যদি বাচ্চার প্রয়োজন হয়, তবে তিনবার, চারবার কিংবা পাঁচবার পর্যন্ত সিজার করা যায়।

প্রতিবার সিজারের সঙ্গে সঙ্গে ঝুঁকি কিন্তু বাড়ে। সিজার করলে সাধারণত কী হয়? একটা জায়গা কাটা হয়। বাচ্চাটাকে বের করা হয় কেটে। এ ক্ষেত্রে দেখা যায় যে, দ্বিতীয় বাচ্চাটা যখন আসবে, জরায়ু যখন বড় হতে থাকবে, তখন কাটা জায়গাটাতে টান পড়ে।

এক্ষেত্রে সিম্পটম অনুসারে ডাক্তারের কাছে গিয়ে চিকিৎসা নিতে হবে। বড় সমস্যা হলো জরায়ু ফেটে যায়। এক্ষেত্রে বাচ্চার জীবন যায়, মায়ের জীবন ঝুঁকিতে পড়ে।

একবার সিজার হলে, পরবর্তীতে সিজারে ডেলিভারির আশঙ্কা বাড়ে। প্রথম বাচ্চা সিজারে ডেলিভারি হওয়ার পর, পরেরটার নরমাল ডেলিভারি হওয়ার আশঙ্কা কমে।

সিজারের ক্ষেত্রে মায়ের রক্ত নিতে হয়। রক্তের মাধ্যমে বিভিন্ন ঝুঁকি বাড়ে। সব থেকে বড় বিপদ হচ্ছে, গর্ভফুল। জরায়ুর মুখের দিকে বাচ্চা থাকে। জরায়ুতে ফুল থাকে। যখন সিজার করা হয়, তখন দেখা যায় কাটা জায়গাটায় ফুলটা বসে। মুহূর্তের মধ্যে অনেক রক্ত বের হয় মায়ের। তখন মাকে বাঁচানোর অনেক বেশি কঠিন হয়ে যায়।

অনেক ক্ষেত্রেই মায়ের আইসিইউ (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) সেবার প্রয়োজন হয়। অনেকেই ফিরে আসেন না আইসিইউ থেকে। এজন্য আপনাদের জন্য বলবো, এক্ষেত্রে কেবল প্রয়োজন হলে বাচ্চা নেবেন।

সূত্র: যুগান্তর

E/N

আপনার মতামত লিখুন


এ জাতীয় আরো খবর..

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১